• Home
  • Article Details

কভার লেটারে নিজেকে উপস্থাপন করুন ভিন্নভাবে

Jan 2, 2017

Share on

Article image

চাকরি প্রত্যাশী হিসেবে নিজের যোগ্যতা ও দক্ষতার কথা সাজিয়ে একটি সিভি তৈরি ক্ষেত্রে আমরা যতটা গুরুত্বদেই, কভার লেটার লেখার ক্ষেত্রে অনেকেই ততোটা গুরুত্ব দেই না হয়তো। কিন্তু চাকরির বাজারে চাকরিদাতার নজর পেতে সারা পৃথিবীতেই এটি গুরত্বপূর্ণ বলে বিবেচিত হচ্ছে । সুন্দর উপস্খাপনার তথ্যপূর্ণ একটি কভার লেটার চাকরি প্রার্থীর পক্ষে বাড়তি ভ্যালু যোগ করে বলে মনে করেন ক্যারিয়ার স্পেশালিষ্টরা। চাকরি দাতারা কভার লেটার থেকে এমন সব তথ্য খুঁজে নিতে চায় যা কিনা একজন আবেদনকারীকে অন্য প্রর্থীদের থেকে আলাদা ভাবে উপস্থাপন করে।

কভার লেটারের মাধ্যমে চাকরিদাতার নিকট নিজের সম্পর্কে গুরত্বপূর্ণ সব তথ্য হাজির করা সম্ভব যা কিনা অনেক সময়ই সিভিতে সম্ভব উল্লেখ করা হয়না। এই কভার লেটারে কি লেখা যেতে পারে, ইন্টারনেট অবলম্বনে সে বিষয়ে বেশ কয়েকটি পরামর্শ নিচে তুলে ধরা হয়েছে যা কিনা চাকরিদাতার নিকট আপনাকে আলাদা করে উপস্থাপন করতে পারে। একজন চাকরি প্রত্যাশীকে নিয়ে যেতে পারে  চাকরির সাক্ষাৎকার পর্বে।

  • ভিন্ন ভিন্ন চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানের জন্য ভিন্ন ভিন্ন কভার লেটার তৈরি করুন। প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করুন। যে পদের জন্য আপনি আবেদন করবেন সে পদে কি ধরনের কাজ করতে হবে এবং প্রতিষ্ঠান কোন ধরনের কর্মী খোঁজ করছেন সেটা জানার-বোঝার চেষ্টা করুন। এবার মিলিয়ে দেখুন সেগুলোর মধ্যে কি কি গুন/যোগ্যতা/দক্ষতা আপনার ভেতরে রয়েছে। সেগুলো লিখুন। যাতে চাকরিদাতা বুঝতে পারে যে আপনি প্রতিষ্ঠান এবং যে পদের জন্য আবেদন করছেন সে বিষয়ে খোঁজখবর নিয়েছেন। 
  • কভার লেটারের মাধ্যমে আপনাকে সংক্ষেপে নিজের যোগ্যতা,দক্ষতা,অভিজ্ঞতা আর সাফল্যের গল্প বলতে হবে। তবে এক্ষেত্রে নিজের সেসব যোগ্যতা, দক্ষতা গুলোর কথা বলা উচিৎ যেগুলো যে পদে আবেদন করেছেন তার সাথে সম্পর্কীত। এ ক্ষেত্রে আপনি ভেন ডায়াগ্রাম ব্যবহার করে নিজের যোগ্যতা এবং দক্ষতার পরিমাপ করতে পারেন।
  • আপনি চাকরিটা চাইছেনই সরাসরি এমন কথা না বলে কেন চাইছেন, এই চাকরিটা আপনার ক্যারিয়ার গ্রোথ এ কিভাবে সহায়তা করবে বলে আপনি মনে করেন, এই কাজটা ভবিষ্যতে আপনাকে কিভাবে অনুপ্রানীত করবে বলে আপনি মনে করছেন সে কথাগুলো লিখুন
  • চাকরিদাতার প্রতিষ্ঠানের  কালচার সম্পর্কে জেনে কভার লেটার লেখার সময় ভাষাগত দিক নির্ধারণ করা উচিৎ। ভাষার ব্যবহার হওয়া উচিৎ আকর্ষনীয়, মার্জিত এবং নির্ভুল।
  • কভার লেটারের শেষে লিখুন যে আপনি এই প্রতিষ্ঠানে কাজ করার ক্ষেত্রে কতটা আগ্রহী এবং সাক্ষাতে আলোচনা করতে আগ্রহী।

আবেদন করার পূর্বে বন্ধু কিংবা পরিবারের কাউকে দিয়ে কভার লেটারটি প্রুফ  করিয়ে নেয়া ভালো। যিনি দেখবেন তাকে দেখতে বলুন যে ভাষার ব্যবহার ঠিক আছে কিনা, আকর্ষনীয় বলে মনে হচ্ছে কিনা, কভার লেটারটি পড়ে আপনাকে চাকরিদাতা সরাসরি কথা বলার জন্য ডাকবে বলে মনে হচ্ছে কিনা, চাকরিদাতা যেমন কর্মী খুঁজছেন আপনি তেমন একজন কর্মী হিসেবে নিজেকে এখানে উপস্থাপন করতে পেরেছেন কিনা ইত্যাদি।

Writer:
Profile Photo

ইসতিয়াক আহমেদ শাওন

কন্টেন্ট স্পেশালিষ্ট, চাকরি ডটকম